1. [email protected] : HM Sahabuddin : HM Sahabuddin
  2. [email protected] : UkhiyaVoice24 : Md Omar Faruk
শুক্রবার, ১৯ অগাস্ট ২০২২, ০৭:৩৬ অপরাহ্ন
শিরোনাম:
বিরামপুর পৌরসভায় ভোটার তালিকা হালনাগাদ কার্যক্রমের ২য় ধাপ ছবি উত্তোলন পরির্দশন করেন- জেলা নির্বাচন অফিসার শাহীনুর আলম ১৫ আগস্ট জাতীয় শোক দিবস পালনে পালংখালী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ কক্সবাজার সদর উপজেলাধীন খুরুলিয়া এলাকায় র‌্যাব-১৫ এর অভিযানে আগ্নেয়াস্ত্রসহ একজন গ্রেফতার বাঁশখালীতে বিভিন্ন হোটেল-রেস্টোরেন্টে অস্বাস্থ্যকর পরিবেশে খাবার তৈরি: ১ লাখ ২০ হাজার টাকা জরিমানা জাতির জনকের ১৫ আগস্ট, শোককে শক্তিতে রূপান্তরের উখিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগ বিরামপুরে এক যুবকের মরদহ উদ্ধার বাঁশখালীতে গ্রাম পুলিশ সদস্যদের মাঝে বাইসাইকেল ও পোষাক বিতরণ উখিয়ার গয়ালমারা দাখিল মাদ্রাসায় ১৫ই আগস্ট জাতীয় শোক দিবস পালিত ও র‍্যালি আয়োজন করা হয়। চট্টগ্রাম মহানগর জাতীয় সাংবাদিক সংস্থা’র নেতৃত্বে ওসমান এহতেসাম ও হাসান উল্লাহ উখিয়ায় ইসলামী ছাত্র আন্দোলন বাংলাদেশ ৩১ বছরের প্রতিষ্টাবার্ষিক উৎযাপন।
শিরোনাম:
বিরামপুর পৌরসভায় ভোটার তালিকা হালনাগাদ কার্যক্রমের ২য় ধাপ ছবি উত্তোলন পরির্দশন করেন- জেলা নির্বাচন অফিসার শাহীনুর আলম ১৫ আগস্ট জাতীয় শোক দিবস পালনে পালংখালী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ কক্সবাজার সদর উপজেলাধীন খুরুলিয়া এলাকায় র‌্যাব-১৫ এর অভিযানে আগ্নেয়াস্ত্রসহ একজন গ্রেফতার বাঁশখালীতে বিভিন্ন হোটেল-রেস্টোরেন্টে অস্বাস্থ্যকর পরিবেশে খাবার তৈরি: ১ লাখ ২০ হাজার টাকা জরিমানা জাতির জনকের ১৫ আগস্ট, শোককে শক্তিতে রূপান্তরের উখিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগ বিরামপুরে এক যুবকের মরদহ উদ্ধার বাঁশখালীতে গ্রাম পুলিশ সদস্যদের মাঝে বাইসাইকেল ও পোষাক বিতরণ উখিয়ার গয়ালমারা দাখিল মাদ্রাসায় ১৫ই আগস্ট জাতীয় শোক দিবস পালিত ও র‍্যালি আয়োজন করা হয়। চট্টগ্রাম মহানগর জাতীয় সাংবাদিক সংস্থা’র নেতৃত্বে ওসমান এহতেসাম ও হাসান উল্লাহ উখিয়ায় ইসলামী ছাত্র আন্দোলন বাংলাদেশ ৩১ বছরের প্রতিষ্টাবার্ষিক উৎযাপন।

আধুনিক সভ্যতার বিবর্তনে হারিয়ে গেছে গরুর গাড়ি

  • প্রকাশিত : বুধবার, ২৭ জুলাই, ২০২২
  • ১২ বার পড়া হয়েছে

আধুনিক সভ্যতার বিবর্তনে হারিয়ে গেছে গরুর গাড়ি

এস এম মাসুদ রানা বিরামপুর (দিনাজপুর) প্রতিনিধি- দিনাজপুর জেলার বিরামপুর উপজেলায় এক সময়ের যোগাযোগের অন্যতম মাধ্যম গ্রামবাংলার জনপ্রিয় ঐতিহ্যবাহি গরুর গাড়ি আজ বিলুপ্তির পথে। নতুন নতুন প্রযুক্তির ফলে মানুষের জীবনযাত্রার উন্নয়ন ঘটছে, পক্ষান্তরে হারিয়ে যাচ্ছে অতীতের এই ঐতিহ্য। উন্নয়ন ঘটছে, পক্ষান্তরে হারিয়ে যাচ্ছে অতীতের এই ঐতিহ্য।

গ্রামবাংলার এক সময়ের জনপ্রিয় গরুর গাড়ি এখন যেন রুপকথার গল্প। সভ্যতার প্রায় উন্মেষকাল থেকেই বাংলাদেশের সবর্ত্রই যাতায়াত ও পরিবহনের জন্য একটি গুরুত্বপূণর্ যান ছিল ‘গরুর গাড়ি’। কিন্তু আধুনিক সভ্যতার বিবর্তনে যন্ত্রচালিত লাঙল বা পাওয়ার টিলার এবং নানা যন্ত্রযানের উদ্ভবের ফলে বিলুপ্তি প্রায় ‘গরুর গাড়ি’।

জানা যায়, গরুর গাড়ির ইতিহাস সুপ্রাচীন। খ্রিস্টজন্মের ১৬০০-১৫০০ বছর আগেই সিন্ধু অববাহিকা ও ভারতীয় উপমহাদেশের উত্তর-পশ্চিম অঞ্চলে গরুর গাড়ির প্রচলন ছিল, যা সেখান থেকে ক্রমে ক্রমে দক্ষিণেও ছড়িয়ে পড়ে। গ্রাম বাংলায় এ ঐতিহ্য আজ তা বিলুপ্তির পথে।

একসময় উত্তরাঞ্চলের পল্লী এলাকার জনপ্রিয় বাহন ছিল গরুর গাড়ি। বিশেষ করে এই জনপদে কৃষি ফসল ও মানুষ বহনের জনপ্রিয় বাহন ছিল গরুর গাড়ি। যুগের পরিবর্তনে হারিয়ে যাচ্ছে এই বাহন।

মাঝেমধ্যে প্রত্যন্ত এলাকায় দু-একটি গরুর গাড়ি চোঁখে পড়লেও শহরাঞ্চলে একেবারেই দেখা যায় না। সে কারণে শহরের ছেলেমেয়েরা দূরের কথা, বর্তমানে গ্রামের ছেলেমেয়েরাও গরুর গাড়ি শব্দটির সঙ্গে পরিচিত নয়। এমনকি অনেক শহুরে শিশু গরুর গাড়ি দেখলে বাবা-মাকে জিজ্ঞেস করে গরুর গাড়ি সম্পর্কে।

গরু গাড়ি দুই চাকাবিশিষ্ট গরু বা বলদে টানা এক প্রকার বিশেষ যান। এ যানে সাধারণত একটি মাত্র অক্ষের সাথে চাকা দুটি যুক্ত থাকে। গাড়ির সামনের দিকে একটি জোয়ালের সাথে দুটি গরু বা বলদ জুটি মিলে গাড়ি টেনে নিয়ে চলে। সাধারণত চালক বসেন গাড়ির সামনের দিকে। আর পেছনে বসেন যাত্রীরা। বিভিন্ন মালপত্র বহন করা হয় গাড়ির পেছন দিকে। বিভিন্ন কৃষিজাত দ্রব্য ও ফসল বহনের কাজে গরুর গাড়ির প্রচলন ছিল ব্যাপক।

দুই যুগ আগেও গরুর গাড়িতে চড়ে বর-বধূ যেত। গরুর গাড়ি ছাড়া বিয়ে কল্পনাও করা যেত না। বিয়ে বাড়ি বা মাল পরিবহনে গরুর গাড়ি ছিল একমাত্র পরিবহন বাহন। গরুর গাড়ির চালককে বলা হয় গাড়িয়াল।

আর তাই চালককে উদ্দেশ্য করে রচিত হয়েছে ‘ওকি গাড়িয়াল ভাই’ কিংবা ‘আস্তে বোলাও গাড়ি, আরেক নজর দেখিয়া ন্যাং মুই দয়ার বাপের বাড়িরে গাড়িয়াল’ এরকম যগান্তকারী সব ভাওয়াইয়া গান।

মানুষ বিভিন্ন ধরনের প্রয়োজনীয় মালামাল বহনের জন্য বাহন হিসেবে ব্যবহার করছে ট্রাক, পাওয়ার টিলার, লরি, নসিমন-করিমনসহ বিভিন্ন মালগাড়ি। মানুষের যাতায়াতের জন্য রয়েছে মোটরগাড়ি, রেলগাড়ি, বেবিট্যাক্সি, অটোরিকশা ইত্যাদি।

ফলে গ্রামাঞ্চলেও আর চোখে পড়ে না গরুর গাড়ি। অথচ গরুর গাড়ির একটি সুবিধা হলো, এতে কোনো জ্বালানি লাগে না। ফলে ধোঁয়া হয় না। পরিবেশের কোনো ক্ষতিও করে না। এটি পরিবেশবান্ধব একটি যানবাহন।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ পড়ুন
Copyright © 2020 UkhiyaVoice24
Theme Desiged By Kh Raad (Frilix Group)