1. clients@ukhiyavoice24.com : UkhiyaVoice24 : সাকিব খান
মঙ্গলবার, ২৮ নভেম্বর ২০২৩, ১০:৫২ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম:
লোহাগাড়া সাংবাদিক ইউনিয়নের নবগঠিত কমিটি গঠন বাঁশখালীর প্রবীন আলেম মাওলানা নুরুল হক (সুজিশ) সাহেবের ভোটের কৌশল কাব্য উখিয়ায় আন্ত: প্রাথমিক ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক প্রতিযোগিতার পুরষ্কার বিতরণ অনুষ্ঠিত বঙ্গবন্ধু গোল্ডকাপ ও বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব গোল্ডকাপ টুর্ণামেন্ট ২০২২ চেয়ারম্যান জাহাঙ্গীর কবির চৌধুরীর সাথে শুভেচ্ছা বিনিময় করেন বুদ্ধ পূর্ণিমা উদযাপন পরিষদের নেতৃবৃন্দ লোহাগাড়ায় বৌদ্ধ যুব সমিতির উদ্যোগে বুদ্ধপূর্ণিমা উপলক্ষে বর্ণাট্য মঙ্গল শোভাযাত্রা পাগলাপীর মসজিদের ইমামের ছেলে লাজু’র মৃত্যুতে শিউলী’র শোক প্রকাশ বাঁশখালীতে সড়ক দুর্ঘটনায় চাম্বল বাজারের ফল ব্যবসায়ী তমিজউদ্দীন নিহত। হাসপাতালে ভর্তি হয়ে বাথরুমে বাচ্চা প্রসব করলেন এক নারী
শিরোনাম:
উখিয়ার তরুণ প্রজন্মের আইডল ও জনবান্ধন জননেতা জনাব জাহাঙ্গীর কবির চৌধুরী জামিয়া ইসলামিয়া পটিয়া মাদ্রাসায় গভীর রাতে ভাংচুর ও সন্ত্রাসী হামলাসহ মুহতামিমকে জোরপূর্বক ইস্তফা নামায় স্বাক্ষর করালেন আব্দুর রহিম গ্রেফতার চট্টগ্রাম সিটি মেয়রের সাথে বিশ্বব্যাংকের প্রতিনিধি দলের সৌজন্যে সাক্ষাৎ জামিয়া পটিয়া মাদরাসায় সন্ত্রাসী হামলার প্রতিবাদে রামুতে আঞ্চলিক ইত্তেহাদুল মাদারিসের জরুরি সভা অনুষ্ঠিত উখিয়া ব্লাড ডোনেশন ইউনিট কর্তৃক আয়োজিত ৬৪ জেলা স্বেচ্ছাসেবীদের ৬তম বর্ষপূর্তি উদযাপন ও মিলন মেলা চট্টগ্রাম কর্ণফুলী নদীর তলদেশে বঙ্গবন্ধু টানেল শুভ উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বান্দরবানে নির্মিত দৃষ্টিনন্দন বাস টার্মিনাল সংলগ্ন টানেল শুভ উদ্বোধন করেন- বীর বাহাদুর উশৈসিং অবিলম্বে সংসদ ভেঙ্গে দিয়ে জাতীয় সরকারের অধিনে সুষ্ঠু নির্বাচন দিন,আলহাজ্ব জান্নাতুল ইসলাম নতুন কৌশলে শীর্ষ বালি কেখো উখিয়ার হরিণমারা এলাকার শীর্ষ চিহ্নত বালি কেখো তাকিয়ার নেতৃত্বে বালি উত্তোলন অব্যাহত বাংলাদেশের দিকে ধেঁয়ে আসছে ঘূর্ণিঝড় হামুন। সমুদ্র বন্দর গুলোকে ৪ নম্বর হুশিয়ার সংকেত জারি করেছে বিএমডি

যশোরের শার্শা উপজেলায় কৃষকদের যেন মরার উপর খাঁড়ার ঘা, নেই বৃষ্টির দেখা, সার ও ডিজেলের দাম দ্বিগুণ

  • চালিয়ে যাও বৃহস্পতিবার, ১ সেপ্টেম্বর, ২০২২

যশোর ডেস্ক ঃ-

যশোরের শার্শা উপজেলায় চলতি৷ বছরে রোপা আমন মৌসুমে অনাবৃষ্টির কারণে গত মৌসুমের তুলনায় সেচ খরচ বেড়েছে প্রায় দ্বিগুণ। অপরদিকে সার-ডিজেলের মূল্য বৃদ্ধিতে দিশেহারা যশোরের শার্শা উপজেলার আমন চাষিরা। এ যেন কৃষকের মরার ওপর খাঁড়ার ঘা।হঠাৎ করে ডিজেল ও সারের দাম বৃদ্ধি পাওয়ায় উপজেলার ৬২ হাজার ৬৫০ জন কৃষকের কপালে চিন্তার ভাঁজ পড়েছে। এদের মধ্যে কৃষক ৬০ হাজার ৭৬০ জন ও কৃষাণী ১৮৯০ জন। এসব কৃষক-কৃষাণী আগামী দিনে কীভাবে আবাদ করবেন তা নিয়ে দুশ্চিন্তায় আছেন। চলতি আমন এবং সামনের শীত মৌসুমে সবজির আবাদ হুমকির মুখে পড়তে পারে বলে আশঙ্কা অনেক কৃষক-কৃষাণীর।শার্শা কৃষি অফিস থেকে পাওয়া তথ্যানুযায়ী, শার্শা উপজেলায় গভীর নলকূপ বিদ্যুৎচালিত ৩৯০টি, ডিজেল চালিত ২৫টি, অগভীর নলকূপ সৌর বিদ্যুৎচালিত ৫টি, ডিজেল চালিত ১১ হাজার ৯৩৫টি ও ডিজেলচালিত পাওয়ার পাম্প ৫টি রয়েছে। এসব নলকূপের আওতায় মোট ফসলি জমির পরিমাণ ৬৬ হাজার ৮৬৪ হেক্টর। চলতি আমন ধানের লক্ষ্যমাত্রা ২০ হাজার ৫০০ হেক্টর জমিতে নির্ধারণ করা হয়েছিল যা ছাড়িয়ে আরো বৃদ্ধি পেয়েছে। তবে গত বছরের তুলনায় এবার সার ও ডিজেলের দাম বৃদ্ধিতে উৎপাদন খরচ বৃদ্ধি পেয়েছে।চলতি আমন মৌসুমে চাহিদামতো বৃষ্টি না হওয়ায় যশোরের কৃষকরা শেষ পর্যন্ত স্যালোমেশিনের ওপর নির্ভর করছেন। অধিকাংশ জায়গায় সেচের পানি দিয়ে আমন ধান রোপণ শুরু করেছেন তারা। আর যখন আমন চাষ নিয়ে ব্যস্ত সময় পার করছেন ঠিক সেই সময় বেড়েছে ডিজেল ও সারের দাম। আর এ কারণেই মানসিকভাবে ভেঙে পড়েছেন তারা।
আমন চাষের পাশাপাশি আরও বেশি দুশ্চিন্তা ভর করেছে শীতকালীন সবজি চাষিদের মধ্যে। কারণ শীতকালে সবজি চাষ সম্পূর্ণ সেচের ওপর নির্ভর করে করতে হয়। যেভাবে ডিজেলের দাম বেড়েছে তাতে সবজি চাষে কয়েকগুণ খরচ বেড়ে যাবে বলে চাষিরা মনে করছেন। ব্যাপকভাবে খরচ করে উৎপাাদিত সবজি কাঙ্ক্ষিত দামে বিক্রি করতে পারবেন কিনা অগ্রীম সেই হিসাব কষছেন চাষিরা।বর্তমানে বৃষ্টির যে অবস্থা সেইসঙ্গে ডিজেলের দাম বৃদ্ধি পাওয়ায় আমনের লক্ষ্যমাত্রা অর্জন নিয়েও শঙ্কা দেখা দিয়েছে। অনেক কৃষক এরই মধ্যে আবাদ করা নিয়ে হাল ছেড়ে দিয়েছেন।
তবে কৃষি অফিস বলছে, ডিজেলের দাম বৃদ্ধিতে কৃষিতে কিছুটা হলেও প্রভাব পড়বে। একইভাবে পণ্যেরও দাম বাড়বে। এভাবে কৃষক সমন্বয় করে নিতে পারবেন।তাছাড়া সরকার নানাভাবে কৃষককে প্রণোদনা দিচ্ছে। এ কারণে কৃষক-কৃষাণী ক্ষতিগ্রস্ত হয়তো হবেন না। তারা পুষিয়ে নিতে পারবেন বলে মন্তব্য তাদের।উপজেলার নিজামপুর ইউনিয়নের ছোট নিজামপুর গ্রামের কৃষক ইমামুল হক জানান, সার ও ডিজেলের দাম বৃদ্ধির ফলে চাষাবাদে খরচও বেড়েছে। আবার অনাবৃষ্টির কারণে জমিতে খরা সৃষ্টি হচ্ছে। আমন চাষ অন্যবার জমিতে বাড়তি খরচ ও কম সেচে হলেও এবার তা সম্ভব না। ফলে সেচের জন্য বাড়তি খরচ হচ্ছে। সে হিসাবে ধানের উৎপাদন খরচই উঠবে নাকি বলা যাচ্ছে না।ডিহি ইউনিয়নের তেবাড়িয়া গ্রামের কৃষক শামছুর রহমান জানান, খেয়ে পরে বাঁচার তাগিদে ডিজেল ও সারের বাড়তি দাম মাথায় নিয়ে চাষাবাদ করছি। আর ভরা মৌসুমে বৃষ্টি না থাকায় জমিতে সেচ দিয়ে পানি দিতে হচ্ছে। এতে খরচও হচ্ছে বেশি। এমন অবস্থা থাকলে চাষিদের পক্ষে চাষাবাদ চালিয়ে যাওয়া দুষ্কর হয়ে পড়বে।আনোয়ারা বেগম নামে একজন কৃষাণী বলেন, স্যালোমেশিনের ওপর নির্ভর করে বোরো এবং সবজির আবাদ করা লাগে। এ বছর আমনেও সেচ দিতে হচ্ছে। এই অবস্থায় ডিজেলের দাম বৃদ্ধি পাওয়ায় আবাদ করা কঠিন হয়ে পড়বে।এ বিষয়ে শার্শা উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা প্রতাপ মন্ডল বলেন, সার ও ডিজেলের দাম বৃদ্ধির কারণে কৃষকের চাষাবাদে উৎপাদন খরচও বেড়ে যাচ্ছে। উপজেলায় ২০ হাজার ৫০০ হেক্টর জমিতে আমন চাষের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে। যার লক্ষ্যমাত্রা ছাড়িয়েছে।
তিনি বলেন, উপজেলার অধিকাংশ জমি বিদ্যুৎচালিত মেশিনের মাধ্যমে সেচ ব্যবস্থার আওতায়। যার ফলে সেচ ব্যবস্থায় এই উপজেলায় তেমন প্রভাব পড়বে না। তবে যেহেতু সার-ডিজেলের দাম বৃদ্ধি পেয়েছে চাষিদের উৎপাদন চলমান রাখতে সরকারের কাছে প্রণোদনার জন্য আবেদন করা হয়েছে। এছাড়া উপজেলায় পর্যাপ্ত সার মজুত আছে বলেও জানান ওই কর্মকর্তা।
তবে চাষিদের অভিযোগ আমরা তো মনে হয় তো করতেই পারবো না, কিন্তু আমাদের আসল পাবো কিনা তা নিয়েও চিন্তায় আছি। সরকার যেন আমাদের অর্থনীতির দিকে একটু নজর দেন। তবে হয়তো লোকসানের পরিমাণ কমবে।

ছাড়া দিন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

একধম মিছা কথা
Copyright © 2020 UkhiyaVoice24
Theme Desiged By Kh Raad (Frilix Group)